Digital MarketingFacebook MarketingMake Money

কিভাবে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করবেন ?

বর্তমানে ফেসবুক হচ্ছে জনপ্রিয় একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। ছোট-বড় কমবেশি সব ধরনের মানুষই ফেসবুক ব্যবহার করছে। ফেসবুক অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ার চেয়ে বেশি ব্যবহৃত হচ্ছে। এমনকি মানুষ এখন ফেইসবুক থেকে টাকা আয় করছে।

অনলাইন চাহিদা সম্পর্কে আরো জানতে এখানে ক্লিক করুন

ফেসবুকে ফেসবুক থেকে টাকা আয়

আপনারা কি জানেন ফেসবুক থেকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়?

ফেসবুকে আপনারা শুধুমাত্র সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ধরে নিয়েছেন।  কিন্তু আপনারা এইটা জানেন না যে ফেসবুকে কাজে লাগিয়ে মানুষ এখন অনলাইন থেকে লক্ষ টাকা আয় করছে। ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার অনেকগুলো উপায় আছে।  আপনি চাইলে আপনার হাতে থাকা স্মার্ট ফোন এর মাধমেও ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারেন। 

অর্থাৎ, কিভাবে কোন উপায় কী কাজ করে টাকা উপার্জন করবেন সেই সম্পর্কে নিচে ৯ টি  গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোচনা করব। 

১.  ফেসবুক একাউন্ট খুলে আয়

আপনারা জানেন যে ফেসবুক একাউন্টে পাঁচ হাজারের বেশি ফ্রেন্ড যুক্ত করা যায় না। সেই জন্য মূলত ফেসবুক প্রোফাইল থেকে কোন প্রকার  মনিটাইজ করার সুযোগ দেয়নি। তবে আপনারা যদি কোন প্রকার ব্যক্তিগত ব্লগ থাকে সেই ব্লগের পোস্টগুলো ফেসবুক একাউন্টে শেয়ার করেন।  ফেসবুক থেকে আপনার ব্লগের ভিজিটর বৃদ্ধি করে ব্লগের আয় বাড়াতে পারেন।

তবে অধিকাংশ লোক ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট দিয়ে এই ধরনের কাজ করে না।  ফেসবুক থেকে আয় করার জন্য অবশ্যই আপনার একটি প্রফেশনাল ফেসবুক পেজ থাকতে হবে।  কোন প্রকার নরমাল ফেসবুক অ্যাকাউন্ট দিয়ে ইনকাম করা সম্ভব না।  কারন ফেসবুক শুধুমাত্র ইউজার অ্যাকাউন্ট থেকে সরাসরি টাকা ইনকাম করার সুযোগ দেয়নি। 

২. ফেসবুক পেজের মাধ্যমে আয় 

আপনার ফেসবুক পেইজে  যখন প্রচুর ফ্যান, ফলোয়ার এবং লাইক থাকবে। তখন আপনি বিভিন্ন উপায়ে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে ফেসবুক গ্রুপ, ফেসবুক ফ্যানপেইজ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে পনারা যদি কোন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে থাকে সেই প্রতিষ্ঠান এর নামে ফেসবুক পেইজ তৈরি করে খুব সহজেই প্রতিষ্ঠানের প্রচার প্রসার বাড়াতে পারেন। 

এছাড়া যখন আপনার প্রতিষ্ঠান ফেসবুক পেইজে প্রচুর পরিমাণ লাইক শেয়ার কমেন্ট থাকতে হবে। তখন আপনি চাইলে সহজে আপনার প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন পণ্য বা সার্ভিস ফেসবুক পেইজে আপলোড করে প্রচার করতে পারেন। সঠিক ক্রেতার কাছে পণ্য বিক্রি করতে পারেন।

৩. ফেসবুক লাইক শেয়ার করে আয়

আপনার কাছে যখন জনপ্রিয় একটি ফেসবুক পেজ থাকবে এবং সেই পেজএ  প্রচুর লাইক, ফলোয়ার থাকবে। তখন বিভিন্ন ধরনের অনলাইন মার্কেটার আপনাকে হায়ার করবে তাদের পেজে লাইক বাড়িয়ে দেয়ার জন্য। অথবা ওয়েবসাইটে পোস্ট আপনার পেজএ শেয়ার করার জন্য অফার করবে।

তখন আপনি সেই কাজের জন্য তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন অংকের টাকা বিনিময় করতে পারেন। যাদের ফেসবুক পেজ প্রচুর পরিমাণ লাইক ফলোয়ার থাকে তাদের ক্ষেত্রে 1000 লাইক পাইয়ে দাওয়া মাত্র 5 মিনিটের কাজ। 

৪. ফেসবুক পেইজ বিক্রি করে আয় 

অনলাইন মারকেটিং জগতে ভালো মানের একটি ফেসবুক পেজের অনেক ভ্যালু রয়েছে। আপনার কাছে যদি এই ধরনের ফেসবুক পেজ থাকে। তবে বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটারদের কাছে সেটা বিক্রি করে অনেক টাকা আয় করতে পারবেন। আপনার কাছে যদি এক লক্ষ লাইকএর একটি পেজ থাকে আপনি সেটা এক লক্ষ টাকার সেও অধিক দামে বিক্রি করতে পারেন।

৫. ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল

ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল হচ্ছে ফেসবুকের মোবাইল পাবলিশিংটুল। যার মাধ্যমে একটি ওয়েবসাইট বা ব্লগের ভিজিটরকে কাস্টমাইজ করে অপটিমাইজ করার মাধ্যমে দ্রুততম সময়ে লোড নেওয়া হয়। এর দুটি সুবিধা রয়েছে। ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল ব্যবহার করে, একদিকে আপনার সব পোস্ট দ্রুতগতিতে বানাতে পারেন। 

অন্যদিকে, ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল এর মাধ্যমে পোস্টের ভিতরে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন ব্যবহার করে ফেসবুক হতে আয় করতে পারেন। শুধুমাত্র অনলাইন নিউজ সংক্রান্ত ওয়েব পোস্টগুলো ফেসবুক ইনস্ট্যান্ট আর্টিকেল হতে বেশি টাকা আয় করতে পারে।

৬. ফ্রিল্যান্সিং করে ফেসবুকে আয় 

ফ্রিল্যান্সিং জব পাওয়ার জন্য ফেসবুক নির্দিষ্ট কিছু ভালো মানের গ্রুপ আছে।  আপনি যে বিষয়ে দক্ষ সে বিষয়ে নিয়েই ফ্রিল্যান্সিং করে আয় করতে পারেন। যেমন: ফ্রিল্যান্সিং রাইটিং, ডিজাইনিং, ফটোগ্রাফি, সোশ্যাল মিডিয়া ইত্যাদি।

তবে সঠিক গ্রুপ  নির্বাচন করতে হবে। সাধারণত কোন ধরনের গ্রুপগুলো ভালো সেটা আপনি দেখলেই বুঝতে পারবেন।

৭. ফেসবুক গ্রুপ  থেকে আয় 

অনলাইনে এমন অনেক পণ্য বা সার্ভিস কেনাকাটার গ্রুপ রয়েছে। এসব গ্রুপগুলোতে লক্ষ লক্ষ মেম্বার রয়েছে। আপনি সেখানে জয়েন করে আপনার প্রোডাক্ট বা সার্ভিস এর প্রচারণা করে টাকা আয় করতে পারেন। আপনার কোন ব্লগ থাকলে ব্লগের পোস্ট গ্রুপে শেয়ার করে আপনার ব্লগ ধারা আয় করতে পারেন।

৮. ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দিয়ে আয় 

অনলাইনে বিজ্ঞাপন বা ডিজিটাল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে ফেসবুক বিজ্ঞাপন বর্তমানে খুব জনপ্রিয়। আপনি চাইলে ফেসবুকে বিভিন্ন জিনিসের বিজ্ঞাপন দিয়ে আপনার প্রোডাক্ট বিক্রি করে অনলাইন থেকে আয় করতে পারেন। মনে করুন আপনার কাছে একটি ভালো প্রোডাক্ট আছে। কিন্তু আপনি সেটা বিক্রি করতে পারছেন না। সে ক্ষেত্রে আপনি বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে সহজে বিক্রি করতে পারবেন।

৯. অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয়

অন্যের প্রোডাক্ট বিক্রি করে বিক্রয়ের উপর কমিশন নিয়ে অনলাইন থেকে আয় করাকে সহজ ভাষায় এফিলিয়েট মার্কেটিং বলে।

প্রোডাক্ট বিক্রি করতে শুধু ডিজিটাল প্রডাক্ট সব ধরনের প্রোডাক্টই বুজায়। 

যেমন-Amazone, eBay, Daraz, BD Shop এর মত অনেক ধরনের অনলাইন মার্কেট থেকে মানুষ এখন নিয়মিত প্রোডাক্ট কিনে থাকেন। 

আপনি চাইলে এধরনের মার্কেটগুলোতে একটি অ্যাকাউন্ট খুলে সহজে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারেন। সাধারণত ফেসবুক কে যাদের প্রচুর ফ্যান ফলোয়ার আছে তারা এই মার্কেটিং খুব সহজে করতে পারে। 

কিভাবে অনলাইন থেকে ইনকাম করবেন এই সম্পর্কে আরো জানতে এই লিঙ্কে ভিসিট করুন।

শেষকথা 

অনলাইন মার্কেটিং অর্থাৎ ডিজিটাল মার্কেটিং এর গুরুত্ব দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। আপনিও চাইলে নিজের মেধা খাটিয়ে উপরে দেয়া উপায়গুলো ছাড়াও আরো বিভিন্ন উপায়ে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করতে পারেন। 

অর্থাৎ, ফেসবুকের জনপ্রিয়তা যে হারে বাড়ছে। তাতে করে ফেসবুক একদিন ইউটিউব কে ছাড়িয়ে যাবে। কারণ ইউটিউব শুধু ভিডিও শেয়ার করা যায়। 

কিন্তু ফেসবুকে একসাথে আর্টিকেল, ছবি, ব্লগপোস্ট করার পাশাপাশি ভিডিও আপলোড করা যায়। তাই মানুষ ধীরে ধীরে ফেসবুকে ধাবিত হচ্ছে। কাজেই  ফেসবুকে বেকার সময় ব্যয় না করে সামান্য মেধা কাজে লাগিয়ে একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করে ভবিষ্যতের জন্য ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার পথ তৈরি করে নিতে পারেন। 

Leave a Comment